First Youth News Portal in Bangladesh

add 468*60
শিরোনাম
তারুণ্যের অদম্য গতিতে দেলোয়ার হোসেন তরুণদের নতুন দুশ্চিন্তার নাম হৃদরোগ বাংলাদেশে শিশুশ্রম: কারণ ও করনীয় ২৮ জনকে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ ব্যাংক হতাশাগ্রস্ত তরুণদের খোঁজ কে রাখে কেমন হতে পারে করোনা-পরবর্তী উচ্চশিক্ষা কর্মক্ষেত্রে সফল হতে করণীয় টিকা পেতে ঢাবির শিক্ষার্থীদের এনআইডি করার আহ্বান একজন নারীর স্বামী হতে পারবেন একাধিক পুরুষ মৃৎশিল্প নিয়ে কুষ্টিয়ার সাব্বিরের ই-বিলাস ৭ মার্চের ভাষণ তারুণ্যের উজ্জীবনী শক্তি বুকপকেটে নন্দিতা দাশ প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শাবিপ্রবি শাহপরান হলে বিশেষ ব্যবস্থা তৃতীয় লিঙ্গের চরিত্রে শামীম হাসান ডায়ানা অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হলেন বাংলাদেশের ইউসুফ মুন্না বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে চাকরির আবেদনের শেষ তারিখ ১১ জুলাই স্যানিটাইজার ব্যবহারে সতর্কতা ঢাবির শতবর্ষপূর্তি ১ জুলাই হাত বাড়ালেই দিগন্ত মাদক বিস্তারের পথ রুদ্ধ হোক ভালবাসার মানুষের ব্যক্তিত্ব জানা যায় হাত ধরার ভঙ্গিতেই ৪০৫ জন নিয়োগ দেবে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কবে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ডিজিটাল বৈষম্য দূর করতে হবে সম্পর্ক : প্রেম নাকি গুরুত্ব? শিক্ষক নিবন্ধনের ভাইভার তারিখ পরিবর্তন একুশে গ্রন্থমেলা ১৮ মার্চ থেকে শুরু হয়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষা ভিসার আবেদন নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবি কতটা যৌক্তিক রাজের রোমিও জুলিয়েট করোনায় ব্যতিক্রমী পাঠদানে আলোক শিক্ষালয় ভ্যালেন্টাইন কাভার পেজে সাবিলা কেশবপুর পাল্টে দেন একঝাঁক কিশোর হুইলচেয়ার বসেই আজিজ পাল্টে দেন জীবনের গল্প গ্লোবাল পিস চেইনের বাংলাদেশের প্রধান তাসমিয়া ৪৪ হাজার মেয়ের প্রস্তাব পাওয়া তরুণ ইনস্টাগ্রামের ছবি সেভ করুন সহজেই ধর্ষণমুক্ত সমাজ গঠনে করণীয় নতুন প্রযুক্তি ও তারুণ্য ভূমি সংস্কার বোর্ডের কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন কম বয়সে হৃদরোগের ঝুঁকি করোনাকাল তরুণরা যেভাবে কাজে লাগাতে পারে পাহাড়ী অরণ্যে তারুণ্য সিনেমার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে নিশাত প্রিয়ম স্মার্টফোন কিনতে সুদবিহীন ঋণ পাচ্ছেন ৪১ হাজার ৫০১ শিক্ষার্থী শিক্ষার উদ্দেশ্য কি শুধুই চাকরি জোগাড়? একজন শিক্ষার্থী একটি খামার অন্তঃসত্ত্বার রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে করণীয় টেকনো ইন্ডিয়া ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডির সুযোগ দিচ্ছে নর্দান ও বিআইআইএইচএস ক্যারিয়ার, স্বপ্ন ও বাস্তবতা এইচএসসি পরীক্ষার মূল্যায়ন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি চাকরিতে আবেদনের বয়স বৃদ্ধি করা হোক অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা, টেকসই উন্নয়ন ও নৈতিক শিক্ষাকে কারিকুলামে অন্তর্ভুক্তির সুপারিশ বিইসিকে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট শিক্ষাবিদদের কবিতা: নির্বাসনে চলে যাই মাস্ক ব্যবহারে ব্রণের সমস্যা সমাধানে করণীয় নিয়মিত শিক্ষার্থীদের প্রাতিষ্ঠানিক ই-মেইল এড্রেস দেবে ঢাবি দক্ষতা ও যোগ্যতার অপচয় কাম্য নয় বাবুর স্বপ্নের সবুজ বাংলাদেশ নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে ‘জেন্ডার মেইন্সট্রিমিং’ বইয়ের ভার্চুয়াল উদ্ভোধন বিসিএসের পেছনে কেন আমাদের এত দৌড়? ফেসবুকের অপব্যবহার লালমনিরহাটে ৩০টি গ্রাম বাজারের ৩০টি সেলুন লাইব্রেরি পরিচালনা করছেন কলেজ ছাত্র জামাল তিন উদ্যোক্তার অর্পণ ন্যাচারস বেস্ট ফটোগ্রাফি এশিয়ায় প্রথম বাংলাদেশি জাকিরুল নিজের গল্পে অভিনয় দেশকে এগিয়ে নিতে তরুণদের সুযোগ দিতে হবে- সায়মা ওয়াজেদ এসি বিস্ফোরণ কেন এবং এড়াতে করণীয় চাকরিপ্রার্থীর শারীরিক ভাষা শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে সেরা শিক্ষক বাংলাদেশের তরুণ মোয়াজ্জেম বঙ্গবন্ধুই বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়ে সাইকোলজি কাউন্সেলিং সেন্টার জরুরি ক্যারিয়ার নিয়ে সচেতন সারিকা সাবাহ 'গ্লোবাল ডিজিটাল এন্ট্রাপ্রেনারশীপ মাস্টারক্লাস' অনুষ্ঠিত টেকসই স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়তে কাজ করবে আইইবি ও আইসিটি ডিভিশন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবেন যেভাবে মেধাবীদের প্রবাসপ্রীতি ও আমাদের দায়িত্ববোধ ভালো মানুষ হতে হবে বিসিএসের পেছনে কেন আমাদের এত দৌড়? শরৎ মানেই কাশফুলের শুভ্রতা জাপানের পার্কে স্বচ্ছ কাঁচের টয়লেট! আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা আগোরা'র সেরা পুরস্কারটি জিতলেন বাংলাদেশের শাহেদ ফিনল্যান্ডে ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য সুখবর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য অনলাইন শিক্ষাবৃত্তি ‘এডু হাইভ’ স্কুল খোলা ও পরীক্ষা নিয়ে শঙ্কা নিজের তৈরি বাইক বাজারজাত করতে চান মুন্না কৃতি সন্তানের মাপকাঠি কুমারেশ বিশ্বাসের কবিতা ‘স্বাধীন দেশের স্বপ্ন সারথি’ তারুণ্যেই পরিণত নেতৃত্ব মা হচ্ছেন কারিনা, চিন্তিত আমির খান চুল পড়া কমানোর প্রাকৃতিক উপায় বিশ্বের দ্রুততম মানবক্যালকুলেটর নীলকান্ত! ঢাকাই ছবিতে নায়িকা হয়ে আসছেন শিশুশিল্পী হিসেবে পরিচিতি পাওয়া দীঘি ৬ সেপ্টেম্বর থেকে চবিতে অনলাইন ক্লাস শুরু হোয়াটসঅ্যাপেও করা যাবে কল রেকর্ডিং বিশ্বের দ্রুততম মানব ক্যালকুলেটর নীলকান্ত ভানু প্রকাশ জাতিসংঘের রিয়েল লাইফ হিরো আঁখি মানবকল্যাণে নিয়োজিত থাকতে বদ্ধপরিকর ফ্রিল্যান্সারদের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়া প্রয়োজন: প্রধানমন্ত্রী করোনা পরবর্তী চাকরি সুযোগ বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অক্সফোর্ড পলিটিক্যাল রিভিউ ও ঢাবির প্যানেলে আলোচনা মঙ্গলবার রবি-টেন মিনিট স্কুল চালু করলো ডিজিটাল মার্কেটিং মাস্টার ক্লাস দেশি পণ্য দেশি দশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ছাড়! যারা নতুন উদ্যোক্তার স্বপ্ন যাদের বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছুদের অনলাইনে বিনামূল্যে কোচিং করাবে অদম্য বাবুর স্বপ্নের সবুজ বাংলাদেশ কবে হতে পারে এইচএসসি পরীক্ষা? ইবির নয়া ভিসি কে হচ্ছেন? দামি হোটেলে রাতের খাবার খেল পথশিশুরা দাঁড়িয়ে খাবার খেলে হতে পারে যেসব ক্ষতি! হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের অনলাইন টিচিং’র উপর প্রশিক্ষণ কর্মশালা মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত মাড়ির রক্তপাতকে অবহেলা নয় সর্দি-কাশিতে ওষুধের চেয়ে মধু বেশি কার্যকরী ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে শেভেনিং স্কলারশিপের আবেদন শুরু ৩ সেপ্টেম্বর বাসা যখন অফিস ফেসবুক মেসেঞ্জারে নতুন যেসব সুবিধা স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন চিত্র প্রদর্শনী ‘কোভিড ডায়েরিজ’ আত্মহত্যা একটি স্বপ্নের অপমৃত্যু ইন্টারনেটের স্পিড ঘরোয়া উপায়ে বাড়ানোর উপায় ইউএন ইয়ং চ্যাম্পিয়ান অব দ্য আর্থ প্রতিযোগিতার ফাইনালে বাংলাদেশের রাযিন দেশের প্রথম ইউটিউব স্বীকৃত এক্সপার্ট ও টপ কন্ট্রিবিউটর আতিকুল একাদশে ভর্তি: প্রথম ধাপে নির্বাচিতদের ফল প্রকাশ ২৫ আগস্ট করোনায় আক্রান্ত এসআই টুটুল ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হচ্ছে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় প্রতিযোগিতা ‘ট্র্যাকশন’ কয়েক প্রস্ত ধলবক বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ নারী ফাউন্ডারের বাংলাদেশি মালিহা কাদির শখের নতুন সংসার শুরু! করোনাকালে আরেক আতঙ্ক ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া, বাড়াতে হবে সর্তকতা বেশি ভাত খেলে হৃদরোগের আশঙ্কা কালের যাত্রায় চিরঞ্জীব বাঙ্গালীর বঙ্গবন্ধু জাতির পিতার স্বপ্নপূরণ করবার দায়িত্ব নিতে হবে নতুন প্রজন্মকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ১৫ দিনের মধ্যেই এইচএসসি পরীক্ষা চাকরি নেই? বেকার? কি করবেন? কিভাবে করবেন? সুইজারল্যান্ডে ওয়েল্টফরমেট গ্রাফিক ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড ২০২০ করোনাকালে শিক্ষা খাতের দিকে বেশি নজর দিতে হবে বাসায় থাকুন, সন্তানকে সময় দিন করোনা মোকাবেলায় এইচডব্লিউপিএল সদস্যরা প্লাজমা অনুদানে সম্মত আমার স্মৃতিপটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তিন ব্যাংকে ৪০ কর্মকর্তা নিয়োগ ক্যারিয়ার প্ল্যানিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন হ্যাকস সেমিনার ৭ ফেব্রুয়ারি প্রতিভা অন্বেষণে মিউজিকের ব্যতিক্রমী আয়োজন করোনা আক্রান্ত হলে বাসা থেকেই হাসপাতালের চিকিৎসা গ্রহণের আদ্যোপান্ত সমুদ্র সম্পদের টেকসই উন্নয়নে ব্লু ইকোনমির বিকল্প নাই তোমার চোখে তাকাতে পারি না (স্মরণে: ডা. মঈন উদ্দিন) করোনাকালীন সরকারি প্রনোদনা করোনার প্রাক্কালে মানবসেবায় তারুণ্যের প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা করোনা ভাইরাস: নিজের হাত যত্নে রাখি করোনা ভাইরাস: সচেতনতা ও করণীয় অফ-ফেসবুক অ্যাকটিভিটি’ টুল ফিচার যুক্ত করেছে ফেসবুক নিয়মিত খেলাধুলাই পারে যুবসমাজকে মাদকের নেশা দুরে রাখতে উত্ত্যক্তের শিকার নাদিয়া মিম মারিয়া নূরের ভ্যালেন্টাইনস ডে-২০২০ নারী উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে ই-কমার্স ওয়েবসাইটের ওপর ফ্রি ওয়ার্কশপ শিক্ষাব্যবস্থা ১৮০ ডিগ্রি বদলে উদ্যোক্তার দিকে ধাবিত হতে হবে হৃদয়ে প্রেমের স্মৃতি | মাসুদুর রহমান মান্না ভিন্নদৃষ্টি'র পাঠশালাতে শীতবস্ত্র বিতরণ গৌরব-ঐতিহ্য ও আন্দোলন-সংগ্রামে ছাত্রলীগ শিক্ষা উন্নয়ন পরিকল্পনায় জনমানুষকে সম্পৃক্তকরণ জরুরি রোকেয়া হলে রোকেয়া দিবস পালিত নতুন বছরে সালমার প্রথম গান ‘পাঁজর’ শাবিপ্রবি  জিতেছে শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাওয়ার্ড মুকুট প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন ববির ৫ শিক্ষার্থী মুজিববর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে নবজাগরণ সৃষ্টি হোক বাড়ন্ত শিশুর খাদ্য তালিকায় যা রাখবেন মঞ্জুর মোর্শেদ রুমনের দুটি ছড়া ফ্যামিলি ক্রাইসিসের ঝুমু নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সারিকা কমনওয়েলথ বৃত্তি পেতে করণীয় সতেজতায় গ্রিণ টি বড় স্বপ্ন দেখার মাধ্যমেই সমাজকে পরিবর্তন করা সম্ভব পরিচর্যার মাধ্যমে মেধার মূল্যায়ন চাই বিজয় মানে তেমন করে অব্যক্ত অনুভূতি... প্রোষিতভর্তৃকার দীর্ঘশ্বাস বলছি না তোমায়, আমাকে মনে রাখতেই হবে (কবিতা) তুরস্কে পড়াশোনার জন্য কিভাবে ফুল ফ্রি স্কলারশিপ পাবেন? সেরা ক্যাম্পাস স্টার হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী রাবিতে খুদে কূটনৈতিকদের সম্মেলন সমাপ্ত বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক পদে নিয়োগ দুর্যোগের ঝুঁকি হ্রাসে তরুণ সমাজ বড় ভূমিকা রাখতে পারে ইয়াং ডিজিটাল মার্কেটার পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশের জাবেদ সুলতান পিয়াস ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণে সহযোগিতা চাইলেন শাওন একদিনের ব্যবধানে শীর্ষ ধনীর মুকুট ফিরে পেলেন বেজোস ট্যুরিজম স্যুভেনির নিয়ে চার তরুণের উদ্যোগ উদ্ভাবক আমির হোসেন: মেইড ইন বাংলাদেশ (ভিডিও) ফাস্ট ফুডের দোকান থেকে অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষ ধনী আশিক বছর সেরা জাপানের তরুণ বিজ্ঞানী বাংলাদেশের আরিফ তিনি ছিন্নমূল শিশুদের ‘মা’ ‘পারব স্যার, কোনো সমস্যা নেই’ দৃষ্টিশক্তি ছাড়াই প্রাঞ্জলের ইতিহাস খাওয়ার পর মিষ্টি খেলে কি ওজন বাড়ে? বাংলাদেশের পাসপোর্টের রঙ সবুজ কেন? ভয়াবহ আকারে বেড়ে গেছে র‍্যাগিং, করণীয় কী? সাইক্লিংয়ে ঝুঁকছে তরুণ-তরুণীরা ভিন্ন রঙে আঁকা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস  বিজয়ী স্টার্টআপরা পাবেন ১০ লাখ টাকা সেরা ১০ উদ্যোগ পাবে এক কোটি টাকা রেকর্ড গড়তে ভালোবাসেন আমি যেভাবে আইইএলটিএসে ৯ পেলাম পড়তে পড়তে চাকরি নাসায় আলোর তারা একটি সেতুর জন্য শিক্ষার্থীদের আকুতি ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ নানজিবা তোরসা সেরা বাংলাবিদ শাজেদুর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গুরুত্ব ও এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কে হচ্ছে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৯? ভাইরাল ভাইরাল চোখ সাজাতে সতর্কতা নখের কদর ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কাঁকরোল আশার আলো দেখছে ডাক বিভাগ দীর্ঘ সময় হেডফোন ব্যবহার করেন, সতর্ক হোন এখনই! কম সময়ে বেশি কাজ করার ৫ পরামর্শ স্মার্টফোনের সাহায্যে চলবে স্মার্ট এসি ঢাকায় লেক পরিচ্ছন্নতায় ইইউ প্রতিনিধি দল দরজা নেই কোন ঘরেই, তবুও হয় না চুরি বিদেশে পড়তে যাওয়ার আগে যা জানা জরুরি নারীদের ভাগ্য পরিবর্তনের কারিগর জ্যোতিকা চাকমা বিলের মধ্যে দুই সেতু, নেই রাস্তা দাঁড়িয়ে পানি পানের যত ক্ষতি কম পেঁয়াজ দিয়ে সুস্বাদু রান্নার ৭ উপায় চুলের উজ্জ্বলতা ফেরাবে ঘরে তৈরি ৪ হেয়ার প্যাক স্বস্তিকাকে ভক্তের কুপ্রস্তাব চিত্রনায়ক জসিমের ২১তম মৃত্যবার্ষিকী আজ নতুন বিজ্ঞাপনে মেহজাবিন আমরা কতটা মানবিক: সেলেনা ভিডিও গেম খেলেই কোটিপতি টিউশনির টাকায় চলছে মীর নাদিমের ‘পদ্মা পাড়ের পাঠশালা’ আত্মহত্যা সমাধান নয় বায়ুদূষণ রোধে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে র‌্যাম্প মডেলদের ফিটনেস–রহস্য ৭৫ শতাংশ বৃত্তিতে আইটি ও অ্যানিমেশন কোর্সে ভর্তি স্মৃতির মানসপটে যুক্তরাজ্য সফর যেভাবে প্রাণের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে দেখতে চাই অত:পর, কোন একদিন...... দ্রুত ওজন কমানোর কিছু কৌশল জাপানের সুমিতমো বৃত্তি পেল ঢাবির ৪০ শিক্ষার্থী চীন যাচ্ছে ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি (আইএমটি) বাগেরহাটের ১০ শিক্ষার্থী ইন্টারনেট ও তরুণ প্রজন্ম বাজারে এলো বিশ্বের প্রথম উড়ন্ত মোটরসাইকেল ৩৯ দেশে রাশেদুলের ক্রিয়েশন ইঞ্জিনিয়ার হয়ে বিদেশ যাওয়ার স্বপ্ন ছিল আবরারের কোমল পানীয় যেভাবে ক্ষতি করে গর্ভাবস্থায় যেভাবে চুলের যত্ন নেবেন সাইকেল কেন চালাবেন? যে সাত লক্ষণে বুঝবেন সঙ্গীর সঙ্গে জীবন কাটানো যাবে সপ্তাহে কয়টি ডিম খাওয়া স্বাস্থ্যসম্মত? নাচেই শরীর ফিট কাজ খুঁজছে ১৫ লাখ তরুণ-তরুণী হলিউডে বাংলাদেশের দুই তরুণ জাপান সরকার দিচ্ছে মেক্সট স্কলারশিপ উচ্চ মাধ্যমিকের পর ক্যারিয়ার পরিকল্পনা পুরুষের ত্বক ভালো রাখার ৪ কৌশল ওজন কমাতে সহায়ক তুলসি চা ব্রণের সমস্যায় যেসব নিয়ম মানা উচিত পাকস্থলীর আলসার প্রতিরোধে যা করণীয় প্রভাবশালী ব্রিটিশ রাজনীতিবিদের তালিকায় টিউলিপ বিশ্বকে বাঁচাতে কাজ করছেন যে নারীরা অ্যাম্বুলেন্সের স্টিয়ারিং হাতে তিন নারী আপনারা আমার স্বপ্ন আর শৈশব কেড়ে নিয়েছেন : গ্রেটা থুনবার্গ ইউনেসকোর স্বীকৃতি পেল নওগাঁর নৃত্য নিকেতন তাঁদের খবর রাখেনি কেউ তিন ভাইয়ের খেলা-পড়ার জগৎ কেন পড়ব রোবটিকস প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পর্বের প্রতিযোগিতা শুরু পূজার সময় সুস্থ থাকা যুদ্ধের ময়দান থেকে ফ্যাশন জগতে বাচ্চুর স্মরণে কোনো আয়োজন নেই এবার নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সমন্বিত উদ্যোগ প্রয়োজন ড্যাফোডিলে অ্যাকটিভেশন পর্ব ক্যাম্পাসের গানের পাখি সমৃদ্ধ সিভির জন্য মাসের খরচের টাকা বাঁচিয়ে ব্যতিক্রম লাইব্রেরি চালান রাজশাহীর বদর উদ্দিন ঢাকায় প্রথম পিআর অ্যান্ড ব্র্যান্ড কমস সামিট ২৬ অক্টোবর রাজনীতি-ক্ষমতা ও তারুণ্য গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র ও তারুণ্য উদ্যোক্তা তৈরিতে সঠিক প্লাটফর্মের অভাব শিক্ষিত তরুণদের হাত ধরে কৃষিতে নতুন সম্ভাবনা কোনো বাধা মানবো না মেয়েরাই বন্ধ করছে বাল্যবিয়ে তিন চাকায় স্বপ্ন বোনেন সুনামগঞ্জের রানী 'ল্যাঙ্গুয়েজ লীগের' যাত্রা ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্ক নয়, প্রয়োজন সচেতনতা নগর কৃষি ও পরিবেশ সংক্ষরণে ছাদবাগান নবীন পরিবেশবিদদের পদকজয় মাসে আয় ১৬০০ ডলার ব্যাংক হিসাব তরুণদেরই বেশি নাসার সফটওয়্যার প্রকৌশলী মাহজাবীন ওয়ার্ল্ড রোবটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে ১৩তম বাংলাদেশ ঢাবিতে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধের ব্যাপারে যা বললেন ভিপি নূর ফ্রিডম অব দ্যা সিটি অব লন্ডন সম্মাননা পেয়েছেন সাবরিনা হুসাইন শাবিতে মেকনোভেশন-২০১৯ শুরু ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিলস ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ’সম্মাননায় ভূষিত প্রধানমন্ত্রী কে এই ক্যাসিনো সাঈদ? ক্যাসিনো বা জুয়া সমাজ ধ্বংসকারী বাংলাদেশে বিশ্ব শান্তি সামিট অনুষ্ঠিত ঢাবির রোকেয়া হলে শেখ কামাল স্মৃতি বিতর্ক ও সুলতানা কামাল স্মৃতি ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তরুণদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ ডেঙ্গু বিষয়ে জরুরি বার্তা: প্রয়োজন সতর্কতা দেশে এক তৃতীয়াংশ যুবক বেকার : ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য শিশুর প্রতি যৌনসহিংসতা: নজরদারি মানেই নিরাপত্তা নয় সবুজের সমারোহ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির যাবতীয় কার্যক্রম এখন  মোবাইল এ্যাপস "এডমিশন এসিস্ট্যান্ট" এ মানুষ স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখে না, স্বপ্নই মানুষকে বাঁচিয়ে রাখে; মাশরাফি: এক উদ্দীপনার নাম সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও সংঘাত দূরীকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে সৃষ্টিশীল তারুণ্য আক্রান্ত তারুণ্য, বিপর্যস্ত তারুণ্য Young people urged to promote peace ৭১-এর আওয়ামী লীগের ভাবনায় তারুণ্য তুরস্কে ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশি তরুণ হাসান কবির সেরা তারুণের ভাবনায় আওয়ামী লীগ শীর্ষক মতবিনিময় ২৯ জুন বাংলাদেশের প্রথম আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর হচ্ছে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) বিশ্ব উদ্যোক্তা সম্মেলনে বাংলাদেশের ৬ তরুণ খেলাধুলায় এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের নারী ঢাকায় কমিউনিকেশন ফর ক্যারিয়ার শীর্ষক কর্মশালা ৪ মে বানানভীতি রোধে প্রসঙ্গ ব্যাবহারিক বাংলা রক্তে লেখা বাংলা ইসলামী আদর্শ ও মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শীর্ষক বইয়ের আত্মপ্রকাশ একজন মানবসম্পদ কর্মী হওয়ার প্রাথমিক পাঠ কলাগাছিয়া ইকোট্যুরিজমে রহস্যময় সুন্দরবনের সৌন্দর্য কলাগাছিয়া ইকোট্যুরিজমে রহস্যময় সুন্দরবনের সৌন্দর্য স্বপ্ন জয়ের স্বপ্নযাত্রা বই উৎসব সরকারের এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ ভিন্নদৃষ্টির বিজয় র‍্যালি আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের স্বর্ণ জয় তরুণ প্রজন্মের উদ্যোক্তা হওয়ার বাধা জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সাফল্য তারুণ্যবান্ধব ইশতেহার চাই সেন্ট মার্টিন্স দ্বীপে রাত্রিযাপন নিষিদ্ধ হচ্ছে না শিক্ষাব্যবস্থা এবং শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার চাপ নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে ফেলেছে সাজগোজের রিমি নির্বাচনী ইশতেহারে তরুণদের প্রত্যাশা কীভাবে নিবেন একটি বুদ্ধিদীপ্ত ও স্মার্ট ডিসিশন কীভাবে নিবেন একটি বুদ্ধিদীপ্ত ও স্মার্ট ডিসিশন এগিয়ে চলেছে পদ্মাসেতুর নির্মাণকাজ দ্রুতগতিতে চলছে মেট্রোরেলের কাজ ফ্রেশাররা কেন চাকরি পায়না ইন্টারভিউ নেয়ার সঠিক ও জরুরি কৌশল ইন্ডিপেন্ডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে ইয়ুথ সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত মিটিং করার আগে ভাবুন তারুণ্যের উৎসব বাংলাদেশ ইয়ুথ সিম্পোজিয়াম-২০১৮ অনুষ্ঠিত হবে ৩০শে অক্টোবর ভয়ংকর আগস্ট ভালো হতে চেয়েছিলাম (ছোটগল্প) সেই পাখিটা রাসেল এইচআর নিয়ে একডজন ভুল ধারনা এবং উত্তর বিশ্ব শান্তির প্রসারে দক্ষিণ কোরিয়ার শান্তি সামিট অনুষ্ঠিত আত্মহত্যা নয়, জীবনকে উপভোগ করুন চবি ক্যাম্পাসে উজ্জ্বল রুমান কনভারশন ডিসঅর্ডার: দরকার সচেতনতা   ইউএনও’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ: দৃষ্টিনন্দন বিল পরিস্কার করলেন নিজেই যুদ্ধকালীন সাংবাদিকতার প্রশিক্ষণ পেলেন রবিউল হাসান ম্যানেজমেন্ট অ্যপ্রোচ ও ভিশন: মালিক-এর চাওয়া ও কর্মী’র প্রতিক্রিয়া দেখে এলাম এশিয়ার সর্ববৃহৎ ক্যাকটাস নার্সারি ওয়াইএসএসই-এর “রেজোন্যান্স-২.১ অনুষ্ঠিত demo_post সমাজকর্ম শিক্ষা, অনুশীলন ও সামাজিক উন্নয়ন: প্রেক্ষাপট বাংলাদেশ নোবিপ্রবিতে ভর্তি আবেদন ১৬ই অক্টোবর পর্যন্ত বৃদ্ধি ঋতুর রানী শরৎ- কবিতা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিযুদ্ধ    তরুণ প্রজন্মই পারে সবুজ পৃথিবী গড়তে উচ্চশিক্ষা ভাবনা, ক্যারিয়ার প্রতিবন্ধকতা ও উত্তরণ ১৭ সেপ্টেম্বর দক্ষিন কোরিয়ায়  শান্তি সামিট শুরু অনলাইনে হয়রানির শিকার হলে যা করবেন নিজের উদ্ভাবিত বিদ্যুতে ঘর আলোকিত রাসেলের ইউনুছের পাঠাগার আন্দোলন আমার ভাষা আমার দায়িত্ব আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেশন প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন ইউআইইউ চুয়েটে বাংলাদেশ প্রেক্ষিত শীর্ষক কর্মশালা শুক্রবার চুয়েটে বাংলাদেশ প্রেক্ষিত শীর্ষক কর্মশালা শুক্রবার ১৫ জনের জীবন বাঁচিয়েছে কিশোর সুমন শিল্প, সাহিত্য ও সাংবাদিকতায় ৫ তরুণকে সম্মাননা তারুণ্যের হাত ধরেই গড়ে উঠবে সোনার দেশ এন্ট্রারপ্রেনারশিপ ভিস্তা কর্মশালা ২৯ সেপ্টেম্বর একগুচ্ছ কবিতা বিশ্বাসযোগ্যতাই ঘুরে দাঁড়ানোর শক্তি শ্রীলংকায় বিচিত্র অভিজ্ঞতায় নয়দিন প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে সফল ভিডিও সম্পাদক রশিদ পরিবর্তিত সমাজে তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য একটি চমৎকার এইচআর সিস্টেমের স্বরূপ বিশ্লেষণ তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সাক্ষাতকার দূরেই থাকুক দুই ঠিকানা (কবিতা) নতুন সামাজিক সংগঠন ‘জাগ্রত তেঁতুলিয়া’-র যাত্রা শুরু নতুন সামাজিক সংগঠন ‘জাগ্রত তেঁতুলিয়া’-র যাত্রা শুরু র‌্যাগিং একটি অপরাধ, চাই প্রতিকার ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটিতে ব্র্যান্ড এইড ২০১৮ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত বিমূর্ত শিল্পী মনসুর কাযী তরুণদের জন্য নিবেদিত একমাত্র অনলাইন পত্রিকা ইয়ুথ জার্নালে ফিচার রাইটার আবশ্যক ইংরেজিতে দক্ষতা এবং এপ্রোপ্রিয়েট ইন্টারভিউয়ের গুরুত্ব ঢাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ১৪ সেপ্টেম্বর স্কুলে ‘মহানুভবতার দেয়াল’ সেপ্টেম্বরই ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি বিএনপির ভুল ও উদার-গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের ঝুঁকি তরুণ প্রজন্মের ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব তরুণ নেতৃত্বের সুদিন ফিরুক প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা যেমন হবে তারুণ্য ধরে রাখতে গ্রিন টি অহেতুক....(কবিতা) কর্মস্থলে সিনিয়র-জুনিয়র সম্পর্ক ইয়ুথ স্কুল ফর স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারস এ স্বেচ্ছাসেবী নিয়োগ এই উচ্চশিক্ষিত বেকার তরুণেরা যাবেন কোথায়? স্বল্প বাজেটে নেপাল ভ্রমন চুরি হয়ে যাওয়া মোবাইল নিজেই জানাবে চোরের মোবাইল নাম্বার ও অবস্থান আবুল স্যার : খেলোয়াড় তৈরির কারিগর পানির ফোয়ারায় জাতীয় পতাকা উদ্ভাবন মাদারীপুরের দুই শিক্ষার্থীর শেখ রাসেলের গল্প Demo Video কচি-কাঁচার ক্যারিয়ার চিন্তা: একটি পর্যবেক্ষণ যুবসমাজকে এগিয়ে নিতে পারে নিরাপদ পরিবেশ কচি-কাঁচার ক্যারিয়ার চিন্তা: একটি পর্যবেক্ষণ কচি-কাঁচার ক্যারিয়ার চিন্তা: একটি পর্যবেক্ষণ না মেরেই পিঁপড়া দূর করবেন যেভাবে কৈশোর তারুণ্যের ক্লাস রুমের পাশে বই ত্বক ফর্সা করতে আমলকির ফেসপ্যাক সফল এর সেই ১৫টি উক্তি, বদলে যাবে জীবন সফল এর সেই ১৫টি উক্তি, বদলে যাবে জীবন যুবক মোটিভেশন ক্যাম্পাসে এড়িয়ে চলবেন যাদের ঈয়েশির ভালবাসা ও টাইগার নেস্ট মোবাইল ফোনে কাটান? মানসিকভাবে শক্তিশালী হওয়ার উপায় হুমায়ূন আহমেদের উপর সানজিদা ইসলামের পিএইচডি গ্লোবাল টিচার্স এ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন আদিল বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের ইউসিএসআই ইউনিভার্সিটির বৃত্তি ইবি শিক্ষার্থীর অভিনব আবিষ্কার সুন্দর চুল তরুণ প্রজন্মকে গণতন্ত্রে আগ্রহী করে গড়ে তুলতে হবে আধুনিক গণতন্ত্র, উদার তথ্য প্রবাহ ও অগ্রযাত্রা তারুণ্য ও রাজনীতির আবশ্যকতা একজন সফল খামারি ও উদ্যোক্তার গল্প ইচ্ছা আর বুদ্ধির সমন্বয় ঘটিয়েই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন মায়া মাটির মায়ার মাহফুজ বাংলাদেশি তরুণের উদ্যোগে যুক্তরাজ্যে গ্লোবাল এনার্জি মুভমেন্ট কৃত্রিম মানব ফুসফুস বানিয়ে সাড়া ফেললেন বাংলাদেশি তরুণী তিন বন্ধুর এক গান অপরাধী খ্যাত টুম্পাকে নিয়ে তপুর ‘একটা গোপন কথা’ জান্নাত’র প্রচারণা সম্মুখে সমূহ অন্ধকার, জাগো হে তরুণ! তরুণ, শুরু করার আগেই হতাশ কেন? অগৌরবময় আত্মগরিমার সংস্কৃতির পরিবর্তন জরুরি নবীন প্রজন্মের সৎ, যোগ্য ও নেতৃত্ব এগিয়ে আসতে হবে বিতর্ক কথন শেখ কামাল হতে পারেন তারুণ্যের আইকন যবনিকার ফাঁকে ছেলেটি এখন কবি- ছোটগল্প কবিতা: তোমাকে দেখার পরে জনপ্রশাসন পদক পেয়ে দায়িত্ব বেড়ে গেল তরুণদের অল্পতেই হতাশ হলে চলবে না ইংরেজি বিতর্কে সেরা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সমাজকর্মের শিক্ষা স্বপ্ন দেখায় আলোকিত মানুষ হওয়ার চাকরিটা হাত ফস্কে যাচ্ছে বারবার, কিন্তু কেন? তামায়ুজ ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড: প্রথম পুরস্কার পেল বাংলাদেশি নিশাত অভিজিতের ঘুরে দাঁড়ানো মাত্র ৫ হাজার টাকায় ঘুরে আসুন দার্জিলিং কোটি পেরিয়ে কণা সবুজায়নের চ্যালেঞ্জে মহেশ বাবু ও কন্যা সিতারা উদ্ভাবনে মেধাবী তরুণ দল সুযোগ আছে ট্যুরিজম ব্যবস্থাপনায় সঙ্গী যখন আইএসআইসি কার্ড ঘড়িতে স্মার্টনেস কখন কেমন ব্যাগ এয়ার হোস্টেস প্রফেশন যখন গ্ল্যামারাস সৌন্দর্য নিয়ে তরুণ-তরুণীদের ভাবনা নাগরিক সমাজ, উদার গণতন্ত্র ও সমাজ-বিবর্তন ধারা উগ্রপন্থা ও আমাদের রাজনীতি ধানমণ্ডিতে শুরু হলো ৩ দিনব‌্যাপী তরুণ উদ্যোক্তা পণ্য মেলা চাকরির জন্য নিজেকে কীভাবে প্রস্তুত করবেন ইন্টারভিউ বোর্ডে সচরাচর ৫ প্রশ্ন ক্যারিয়ার নির্বাচন সামাজিক মেলবন্ধন জাপানে উচ্চশিক্ষা নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘লেটস টক’ ফাইনাল প্রতিযোগিতা বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের হাঙ্গেরিতে ‘নিউক্লিয়ার কিডস’ মিউজিক্যাল শো কোন পথে বাংলাদেশের স্পর্ধিত তারুণ্য! ব্যাগেই আস্ত একটি স্কুল! টরন্টোর শীর্ষ মেধাবীর তালিকায় বাংলাদেশি মীর্জা নাহিয়ান রমজানে গরুর মাংসের দাম ৪৫০ টাকা, খাসি ৭২০ টাকা নির্ধারণ সত্যিই সেলুকাস, এ এক অদ্ভুত উন্নয়নের দেশ! ক্যারিয়ার সমন্বয়হীন পরীক্ষায় বেকায়দায় চাকরিপ্রত্যাশীরা! তরুণ ও তারুণ্য "ভালোবাসা এবং ভালোবাসা" কোটা সংস্কার: 'হ্যান্ডেল উইথ কেয়ার' গরমে শিশুর আরাম ঢাকায় ব্রাজিলের খাবার ডায়েরির পাতায় পাতায় গরমে আরামে ফ্যাশনে ভুল ধারণা যত ‘প্রিন্স মাহমুদ মিক্সড’ অ্যালবামে গাইলেন তপু ও কনা বাংলাদেশকে উন্নত দেশে রূপান্তরের কর্মপরিকল্পনার কাজ শুরু করেছি: প্রধানমন্ত্রী কোন তরুণদের পক্ষ নেবে সরকার? কোন তরুণদের পক্ষ নেবে সরকার? কোন তরুণদের পক্ষ নেবে সরকার? কোন তরুণদের পক্ষ নেবে সরকার? কোন তরুণদের পক্ষ নেবে সরকার? ফুটপাত বন্ধ করে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা আওয়ামী লীগের কার্যালয় ৩২ দিন পর ছাড়া পেয়ে অপহৃত হিল উইমেন্সের দুই নেত্রীর বর্ণনা রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি নেতাদের সংহতি গাজীপুর সিটিতে ভোটের ফলাফলে প্রভাব ফেলবেন নারী শ্রমিকেরা খাবার স্যালাইন বিশ্বব্যাপী পাঁচ কোটি শিশুর জীবন রক্ষা করেছে
;

করোনাকালে শিক্ষা খাতের দিকে বেশি নজর দিতে হবে


করোনায় আক্রান্ত দেশ। এইসাথে দেশের অর্থনীতি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কর্মসংস্থানসহ জনজীবনের সবকিছু কেমন যেন আচমকা থমকে গেছে। পৃথিবী জুড়ে মানুষ নানাধরনের মহামারির গল্প শুনলেও এবার নিজেরাই এর মূখোমূখি। এধরনের অবস্থা মোকাবিলার জন্য মানুষের কিংবা দেশের যে ধরনের প্রস্তুতি প্রয়োজন হয় সেগুলো আমাদের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতে নেই বললেই চলে। তবুও সীমিত সামর্থ দিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয়, মোকাবিলা করতে হয়। ঠিক এরকমের অবস্থায় দেশের অন্যান্য খাতের মতো সবচেয়ে বড় সংকটে আছে শিক্ষা খাত। মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকে আমাদের দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ বন্ধ হয়ে আছে করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে। প্রায় তিন মাসের অধিককাল ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ এবং সেপ্টেম্বরের আগে তা খোলার কোনো সম্ভাবনা এখনও স্পষ্ট নয়।

এই লম্বা সময় ধরে শিক্ষার্থীরা স্কুলে ক্লাসরুম, সহপাঠী এবং খেলার মাঠের বাহিরে অবস্থান করছে। শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নেবার জন্য সরকারি এবং বেসরকারি উদ্যোগে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম চলছে বা বিকল্প ব্যবস্থায় শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। সংসদ টিভির মাধ্যমে যেমন শিক্ষার্থীদের পাঠদান হচ্ছে, তেমনি অনলাইন শিক্ষায় বেসরকারি নানা প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এসেছে, যা সময়ের বিবেচনায় প্রশংসনীয় বটে। দেশের একটি অংশের শিক্ষার্থীদের এসব সুযোগের আওতায় নিয়ে আসা গেলেও বড় অংশ এসব সুবিধা ব্যবহার করতে সমর্থ হচ্ছে না। একটি অংশের শিক্ষার্থীদের রেডিও, টিভি, কম্পিউটার কিংবা ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ নেই বললেই চলে।

 
এমনকি পরিসংখ্যান বলছে, দেশের অর্ধেক শিক্ষার্থীও এসবের আওতায় নেই। বলার অপেক্ষা রাখে না যে, এক্ষেত্রে গ্রামের চেয়ে শহরের শিক্ষার্থীরা খানিকটা এগিয়ে থাকবে। গ্রামেও কেউ কেউ হয়ত এ সুযোগ পাবে বটে কিন্তু উল্লেখযোগ্য অংশই বঞ্চিত থাকছে। শিক্ষাদানের এ প্রক্রিয়া হয়ত খানিকটা সহায়ক কিন্তু কতটা কার্যকর তা নিয়েও ইতোমধ্যে প্রশ্ন উঠেছে। ইতোমধ্যে নগরের শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা অভিযোগ করছেন তাদের সন্তানরা অনেক বেশি ইলেকট্রনিক ডিভাইস নির্ভর হয়ে যাচ্ছে। দেশে সেফ ইন্টারনেট ব্যবহারের চর্চা না থাকায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে শংকায় আছেন অভিভাবকরা। অন্যদিকে বন্ধুহীন হয়ে ঘরবন্দিত্বের কারণেও শিক্ষার্থীদের মনজগতেও তৈরি হচ্ছে সংকট। শিক্ষার্থীদের বাড়ছে ইলেকট্রনিক ডিভাইস নির্ভরতা।

সাম্প্রতিক সময়ে করোনার ছোবলে লম্বা সময় ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের মধ্যে শিশু শিক্ষার্থীদের মারাত্মক সঙ্কটের চিত্র উঠে এসেছে একটি বেসরকারি সংস্থার এক জরিপে।  জানা গেছে, প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের শিশুদের একটি অংশ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে অবস্থান করলেও লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যেও ঘরের বাইরে যাচ্ছে, ১৮ শতাংশ শিশু।

তিন কোটি ১০ লাখ শিশুর মধ্যে ১৮ শতাংশ একটি বিশাল সংখ্যা উল্লেখ করে জরিপ রিপোর্টে উদ্বেগের সাথে বলা হয়েছে, করোনায় আতঙ্কজনক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে শিক্ষার্থীদের মধ্যে। বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী ভয়াবহ পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে সময় পার করছে। শিশুর প্রতি সহিংসতার হার আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে। সংসদ টিভি ও অনলাইনে ক্লাস অধিকাংশ শিশুকে আকৃষ্ট করতে পারেনি। ৫৬ শতাংশ শিক্ষার্থীই এসব অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহণ করছে না।

জরিপে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের এই মহামারি লেখাপড়ায় অনীহা জাগিয়েছে ১৩ শতাংশ শিশুর। যার ফলে ১৪ শতাংশ শিক্ষার্থী পড়াশোনা ছাড়াই ঘরে দিন কাটাচ্ছে। এই ১৪ শতাংশ শিক্ষার্থীর প্রায় কিছু না করা বা একেবারেই অলস সময় কাটানোর পেছনে কিছু কারণ রয়েছে। এদের মধ্যে ৪৪ শতাংশ শিক্ষার্থী জানিয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে তারা কোনরকম নির্দেশনাই পাচ্ছে না। এদের বেশিরভাগই মাদ্রাসার শিক্ষার্থী এবং গ্রামে বাস করে।দূরশিক্ষণে কম অংশগ্রহণের তালিকায় রয়েছে ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী (২৫ শতাংশ), মাদ্রাসা শিক্ষার্থী (৩২ শতাংশ), বিশেষভাবে সক্ষম শিশু (৩৯ শতাংশ) এবং গ্রামে বসবাসকারী শিক্ষার্থী (৪০ শতাংশ)।কম অংশগ্রহণের কিছু কারণ জানা গেছে জরিপে। মূল কারণ-প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার অভাব, যেমন (টেলিভিশন, ইন্টারনেট, বিদ্যুত ব্যবস্থা, ডিশ কানেকশন ইত্যাদি)।

ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীরা কম অংশগ্রহণ করছে কারণ ভাষাগত বাধা এবং তথ্য আদানপ্রদানে ব্যাঘাত হওয়া। পড়াশোনা বাদেও এই লকডাউনের সময়ে শিক্ষার্থীরা আরও নানাবিধ কাজে সময় দিয়েছে। যদিও বেশিরভাগ শিশুই (৫৫ শতাংশ) গৃহস্থের কাজে বাড়ির সদস্যদের সহায়তা করেছে, কিন্তু তারপরও একটা বড় অংশ সময় কাটিয়েছে আপাত অর্থহীন কাজে। যেমন- পরিবারের সদস্য, আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে (২৭ শতাংশ), মোবাইল ফোন, ইন্টারনেট বা অনলাইনে গেম খেলে (১৯ শতাংশ) ইত্যাদি। মেয়ে শিক্ষার্থীরা ছেলে শিক্ষার্থীর তুলনায় ঘরের কাজে বেশি সম্পৃক্ত (৪৪ শতাংশ মেয়ে শিক্ষার্থীর তুলনায় ছেলে শিক্ষার্থীর হার যেখানে ৩২ শতাংশ)। অন্যদিকে ছেলে শিক্ষার্থীরা তুলনামূলক বেশি সময় কাটিয়েছে আড্ডায় (২১ শতাংশ), ইন্টারনেট আর অনলাইন গেমসে (১৭ শতাংশ), খেলাধুলায় (১০ শতাংশ) এবং টিভি দেখায় (১০ শতাংশ)।

জরিপে দেখা গেছে- লকডাউন পরিস্থিতিতে শিশুর প্রতি সহিংসতার হার আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে উল্লেখ করে জরিপে বলা হয়েছে, ‘তিন শতাংশ শিশু লকডাউনে সহিংসতার শিকার। এর মধ্যে ৮২ শতাংশ মানসিক নির্যাতনের শিকার, এছাড়াও রয়েছে শারীরিক নির্যাতন, যৌন হয়রানি, জোর করে আটকে রাখা এবং জোর করে কাজ করানো। এই হিসাবটা যদি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের মোট শিক্ষার্থীদের নিয়ে করা হয় তবে তিন শতাংশ একটা বিশাল সংখ্যায় পরিণত হবে। যেমন সবচেয়ে খারাপ সহিংসতার উদাহরণ হলো, প্রচন্ডভাবে ভীত থাকা, যার শিকার ১৬ শতাংশ বিশেষভাবে সক্ষম শিশু (শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধকতাসম্পন্ন শিশু)। শতকরা ২ শতাংশ মেয়ে শিক্ষার্থী সহিংসতার শিকার হয়েছেন এ সময়ে।

অন্যদিকে গ্রামীণ এবং শহুরে শিক্ষার মধ্যেকার যে বৈষম্য বিদ্যমান ছিল তা আরও বাড়বে বলে আপাত দৃষ্ঠিতে মনে করা হচ্ছে। করোনা পরবর্তি বিদ্যালয় খুলে দেওয়া হলেও অতি দরিদ্র ও পেটের দায়ে শিশুশ্রমের দিকে ঝুঁকে পড়বে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর শিশুরা। মোট শিক্ষার্থীর অন্তত ৩০ শতাংশ বা এর বেশি ঝড়ে পড়তে পারে বলে শিক্ষা নিয়ে কর্মরত সংগঠনসমূহ দাবী করছে। ফলে ঝড়েপড়াসহ শিশু শ্রম বৃদ্ধি পাবে। এ শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে না ফেরার আশঙ্কা বেশি। মহামারি-উত্তর পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক অবস্থার জন্য অনেক শিক্ষার্থীর পরিবারের পক্ষেই খাদ্য সংকটের পাশাপাশি শিক্ষা উপকরণ ক্রয় এবং শিক্ষাব্যয় নির্বাহ করা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। আর তাই খাবারের অভাবের জন্য তাদের পরিবার, শিক্ষার্থীদের শ্রম দিতে বাধ্য করবে। চলমান মহামারির ফলে অনেক গরিব পরিবার আরও বেশি অসহায় হয়ে পড়বে, কাজ হারাবে। সেক্ষেত্রে তাদের সন্তানদের স্কুলে না পাঠিয়ে তারা আয়মূলক কাজে পাঠাতে চাইবে। সংসারের আয় বাড়াতে চাইবে। এই ঝড়েপড়া শিশুদের মধ্যে সর্বাধিক মেয়েশিশু থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। করোনাজনিত কারণে যে দরিদ্র্যতা বাড়বে, তাতে পরিবারের প্রতিদিনের ব্যয় নির্বাহ করা কঠিন হয়ে পড়বে। এর ফলে মেয়েশিশুদের শিক্ষা অব্যহত রাখা পরিবারের জন্য কঠিন হবে। পরিবারে মেয়েশিশুরা হয়ে উঠবে বোঝা। ফলে মেয়েশিশুদের বাল্যবিবাহের হার বাড়বে। পাশাপাশি করোনার কারণে ছাত্রছাত্রীদের নিরাপত্তা, স্বাস্থ্যঝুঁকি ও পুষ্টিহীনতা বাড়বে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। মোটকথা শিক্ষাব্যবস্থার একটি বড় অংশ শিক্ষার্থীরা পড়তে যাচ্ছে কঠিন চ্যালেঞ্জের মূখোমূখি। কিন্তু আমরা কেউ এটি প্রত্যাশা করি না যে, সরকারি এবং বেসরকারি দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টার ফলে শিক্ষায় যে গতি এসেছে তা নিম্নমুখী হোক। শিশু শ্রমিক তৈরি হোক। ঝড়েপড়া আর বাল্যবিবাহের হার বাড়ুক। তাই সময় থাকতেই উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে এবং তা শুরু করতে হবে এখন থেকেই।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে এ সংকট মোকাবিলায় সবার আগে এগিয়ে আসতে হবে।  স্কুলগুলো খোলার পড়ে সকল স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদের পুরানো তালিকা ধরে তাদের উপস্থিতি নিশ্চিত করার জন্য প্রাথমিকভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। এছাড়াও স্থানীয় সরকারের উদ্যোগে স্কুল খোলার পূর্বে এলাকায় মাইকিং করে সকল শিক্ষার্থীদের যথাসময়ে স্কুলে উপস্থিত হবার আহ্বান জানানোসহ স্কুল খোলার প্রথম দিনে শিক্ষার্থী, অভিভাবক, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য, স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি, বেসরকারি সংগঠনের প্রতিনিধিসহ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ্য থেকে একজন করে প্রতিনিধির উপস্থিতিতে জরুরি সভার আয়োজন করতে হবে। এই সভা থেকে সকলকে সচেতন ও সরকারের এ বিষয়ক নির্দেশনা পৌঁছে দেয়া হবে। স্কুলের অগ্রগামী শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের নিয়ে স্কুলভিত্তিক একটি মনিটরিং কমিটি গঠন করা যেতে পারে। যারা প্রতিদিনের অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে তাদের স্কুলে ফিরিয়ে আনবেন। অন্যদিকে শিক্ষকদের দিয়ে ড্রপআউট এর শিকার হতে পারে এমন সম্ভাব্য শিক্ষার্থীদের একটি তালিকা তৈরি করে তাদের জন্য বৃত্তি বা দুপুরের খাবাবের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এর পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মার্চ মাস থেকে আগামী ডিসেম্বর ২০ পর্যন্ত বেতন মওকুফ এর বিষয়টিও সরকারকে বিবেচনা করতে হবে। এছাড়াও যারা সরকারি বিভিন্ন সেফটিনেট কর্মসূচির আওতায় সুবিধাভূগি, তাদের সন্তানরা যাতে নিয়মিত স্কুলে যায়  সে বিষয়ে তাদের নির্দেশনা পৌঁছে দিতে হবে। মোটকথা, শিক্ষা, সমাজসেবা, মহিলাবিষয়ক এবং স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সম্মিলিত উদ্যেগ প্রয়োজন হবে এসংকট মোকাবিলায়।

শিক্ষার্থীদের বিবেচনায় রেখে সরকারি, বেসরকারি সাহায্য বা ত্রাণ তৎপরতার চালানোসহ শিক্ষা উপকরণ সহজলভ্য করার পাশাপাশি পরীক্ষা পদ্ধতিও সহজতর করতে হবে। মনে রাখতে হবে হবে লম্বা সময়ের বিরতির পরে স্কুলে ফিরে শিক্ষার্থীরা যাতে করে কঠিন চাপের মূখে না পড়েন।উল্লিখিত জরিপে বেশিরভাগ উত্তরদাতা (৫৪ শতাংশ) স্কুল শুরু হওয়ার পর অতিরিক্ত ক্লাস নেয়ার পক্ষে মত দিয়েছেন। যদিও করোনাভাইরাস সংক্রামণ বাড়ছে তবু ৪৯ শতাংশ উত্তরদাতা কিছুদিনের মধ্যেই স্কুল খোলার পক্ষে মত দিয়েছেন। অংশগ্রহণকারী উত্তরদাতাদের ৩৫ শতাংশ সিলেবাস কমিয়ে আনার পক্ষে পরামর্শ দিয়েছেন এবং ২৬ শতাংশ উত্তরদাতা শিথিল পরীক্ষার পক্ষে ভোট দিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের মনস্তাত্বিক ট্রমা থেকে বের করতে অংশগ্রহণকারীরা কিছু সুপারিশ করেছিলেন, যার মধ্যে স্কুল শুরু হওয়ার পর বিনোদন কার্যক্রম শুরু করা, উপহার প্রদান বা উপবৃত্তির পরিমাণ বৃদ্ধি, অনলাইন বা দূরশিক্ষণ কার্যক্রম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এসব কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি স্থানীয় সরকারকে পুরো বিষয়টি মনিটরিং এর দায়িত্ব প্রদান করতে হবে, যাতে তারা সক্রিয় ভূমিকা রাখতে পারেন। সরকার নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করার পূর্বে অবশ্যই তার বর্তমানে বিদ্যমান শক্তির এবং সামর্থের ব্যবহার করতে হবে। এর পাশাপাশি স্থানীয় পর্যায়ের সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর শক্তিকে কাজে লাগাতে হবে। আসলে এগুলো হতে পারে একটি সাময়িক এবং তাৎক্ষণিক উদ্যোগ। এধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারলে সরকারের শুভ ইচ্ছার বহিঃপ্রকাশ ঘটবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ বন্ধ হবার ফলে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষকরা এক ধরনের কর্মহীন হয়ে সময় পার করছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে শিক্ষকদের জন্য এসময়ে অনলাইন ভিত্তিক নানা ধরনের দক্ষতা বৃদ্ধির উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারে। এই সাথে যাতে করে সকল শিক্ষক তার ক্লাসের শিক্ষার্থীদের বিষয়ে প্রয়োজনে মোবাইলে নিয়মিত খোঁজখবর রাখেন, পড়াশনুার বিষয়ে দিক নির্দেশনা প্রদান করেন সেটি নিশ্চিত করতে হবে। এরপাশাপাশি দরিদ্র শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা যাতে করে সরকারি এবং বেসরকারি সহয়তার আওতায় আসে সেটি নিশ্চিত করার দায়িত্ব দিতে হবে শিক্ষকদের। ফলে শিক্ষকদের সাথে সংশ্লিষ্ঠ মন্ত্রনালয়, অভিভাবক, শিক্ষার্থী এবং সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সমূহের একটি যোগসুত্র তৈরি হবে। শিক্ষার্থীদের ড্রপ আউটের আশঙ্কা অনেকাংশে কমে যাবে। এসবের এর পাশাপাশি এ সংকট মোকাবিলায় সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে স্বল্পমেয়াদী, মধ্যমেয়াদী এবং দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। অতি অবশ্যই এসব পরিকল্পনার সাথে শিক্ষক, স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটি, অভিভাবক, স্থানীয় সরকার এবং বেসরকারি সংগঠনসমূহকে যুক্ত করতে হবে। কারণ  সকলকে মনে রাখতে হবে এসব উদ্যোগ শুধুমাত্র শিক্ষা সংকট মোকাবিলার জন্য নয়। এ সংকট মোকাবিলার মধ্যে দিয়ে দারিদ্র্য দূরীকরণ, নারী পুরুষের মধ্যেকার বৈষম্য বিলোপ, দক্ষ্য জনশক্তি গড়ে তোলা সহ দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নেবার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। যেকোন দূর্যোগ বা সংকটকালে মানুষ বিপদে পড়ে একথা সত্যি। কিন্তু একথা ভুলে গেলে চলবে না যে, এসব সংকট মানুষের মধ্যে নতুন ধরনের সম্ভাবনা এবং এই সাথে মানুষের মধ্যে নতুন ধরনের প্রাণশক্তিরও সঞ্চার করে। মানুষকে বাঁচতে হবে। সামনে আগাতে হবে। আর তাই এই নতুন প্রজন্মের দিকে সময় থাকতেই সুনজর দেয়ার পাশাপাশি কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করার দাবী সকল মহলের। সুতরাং সময় থাকতেই প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা গ্রহণ করে যদি তা সুষ্ঠভাবে বাস্তবায়নে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব হয় তাহলে সাফল্য আসবেই। মনে রাখতে হবে রাত যত গভীর হয় ভোরের সম্ভাবনা ততই বাড়ে।

চন্দন লাহিড়ী, মুক্ত সাংবাদিক ও বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন- স্টেপস টুয়ার্ডস ডেভেলপমেন্ট এ কর্মরত।


মন্তব্য


Load More 10 Comment

সর্বশেষ সংবাদ

Related News