সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৬ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

First Youth News Portal in Bangladesh

add 468*60

শিরোনাম

একজন মানবসম্পদ কর্মী হওয়ার প্রাথমিক পাঠ কলাগাছিয়া ইকোট্যুরিজমে রহস্যময় সুন্দরবনের সৌন্দর্য কলাগাছিয়া ইকোট্যুরিজমে রহস্যময় সুন্দরবনের সৌন্দর্য স্বপ্ন জয়ের স্বপ্নযাত্রা ভিন্নদৃষ্টির বিজয় র‍্যালি আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের স্বর্ণ জয় তরুণ প্রজন্মের উদ্যোক্তা হওয়ার বাধা জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সাফল্য সেন্ট মার্টিন্স দ্বীপে রাত্রিযাপন নিষিদ্ধ হচ্ছে না শিক্ষাব্যবস্থা এবং শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার চাপ নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে ফেলেছে সাজগোজের রিমি নির্বাচনী ইশতেহারে তরুণদের প্রত্যাশা কীভাবে নিবেন একটি বুদ্ধিদীপ্ত ও স্মার্ট ডিসিশন ফ্রেশাররা কেন চাকরি পায়না ইন্টারভিউ নেয়ার সঠিক ও জরুরি কৌশল

তরুণদের অল্পতেই হতাশ হলে চলবে না

ইয়ুথ জার্নাল প্রতিবেদক

বাংলাদেশে প্রথম শ্রেণির আইটি কোম্পানিগুলোর মধ্যে লিডস কর্পোরেশন অন্যতম। লীডস কর্পোরেশন লিমিটেড এর চীফ অপারেটিং অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন রানা সোহেল। তিনি তার প্রতিষ্ঠান ও বাংলাদেশ তরুণ প্রজন্মেরর সম্ভাবনা নিয়ে সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। তার সাক্ষাতকার নিয়েই এ পর্বকে সাজানো হয়েছে। 

শুরুতেই লীডস কর্পোরেশন প্রসঙ্গে তিনি বলেন যে, বাংলাদেশ এর আইটি সেক্টরে আমরা দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে সেবা দিয়ে আসছি। আমরা মূলত হাডওয়ার ওবং সফটওয়্যার বিষয়ক সেবা প্রদান করে থাকি। তরুণদের জন্য ট্রেনিং ও কনসালটেন্সি সার্ভিস ও দিয়ে থাকি। যেখানে তরুণ প্রজন্ম আইটি বিষয়ক নানা ধরনের কোর্স করতে পারবে, ট্রেনিং এ অংশ নিতে পারবে। নিজেকে সুন্দর ক্যারিয়ার গঠনের জন্য তৈরি করতে পারবে। একজন তরুণের মধ্যে যে গ্যাপটা থাকে তা আমরা ট্রেনিং এর মাধ্যমে পূরণ করে তাকে তৈরি করারর চেষ্টা করি। নতুন নতুন টেকনোলোজি নিয়ে আমরা বিভিন্ন ধরনের কাজ করি। নতুন নতুন টেকনোলোজি আমরা বাংলাদেশে আনার চেষ্টা করি। যেগুলো বাংলাদেশের কাজে লাগবে তা নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করি। 

তিনি তার ক্যারিয়ার নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেন যে, একটি সাধারণ পরিবার থেকে আজকের অবস্থানে আসতে আমাকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। বিদেশে পড়ালেখা করেছি, তবুও দেশের টানে চলে এসেছি দেশের জন্য কাজ করতে।আইটি সেক্টরে কাজ করতে চাইলে ভালো ইংরেজি জানতে হবে। তরুণদের একটা কথাই বলব সফল হওয়ার জন্য লেগে থাকতে হবে। কখানো হতাশ হওয়া যাবে না। ইন্টারভিউ বোর্ডে নিজেকে ভালোভাবে উপস্থাপন করতে হবে। আমাদের দেশের তরুণদের অনেক আইডিয়া আছে। আমরা বিভিন্ন সময় তাদের নিয়ে প্রোগ্রাম করে থাকি যাতে তাদের প্রতিভার সঠিক বিকাশ হয়। তরুণদেরকে বিভিন্ন ধরনের সাপোর্ট দিয়ে থাকি। আমরা সব সময়ই চাই আমাদের তরুণরা এগিয়ে যাক। তরুণরা দেশের বাইরেও কাজ করে তাদের প্রতিভা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিক। আমাদের তরুণদের যে জ্ঞান আছে তা আমরা কাজে লাগিয়ে অনেক কিছু করতে পারি।

টেকনোলোজিতে তরুণদের নিয়ে আশার আলো দেখি। তারা তাদের প্রতিভার মাধ্যমে আমাদের দেশের সুনাম বয়ে আনবে। তরুণরা তোমাদের মধ্যে যারা কর্পোরেট জবে আসতে চাও, তাদের উদ্দেশ্যে বলব, যেটা করবে সেটায় অভিজ্ঞ হতে হবে। অল্পতেই হতাশ হলে চলবে না। নেটওয়ার্ক তৈরি করে কাজ করতে হবে। সফল হতে হলে যে দিকটি থাকতে হবে, তা আমার যা আছে তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হবে। যে কাজটিই করি না কেনো, আত্মবিশ্বাস নিয়ে করতে হবে। তরুণদের সফল ক্যারিয়ার গঠনের ক্ষেত্রে নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে। কাজের প্রতি ভালবাসা থাকতে হবে।