মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

First Youth News Portal in Bangladesh

add 468*60

শিরোনাম

সেন্ট মার্টিন্স দ্বীপে রাত্রিযাপন নিষিদ্ধ হচ্ছে না শিক্ষাব্যবস্থা এবং শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার চাপ নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে ফেলেছে সাজগোজের রিমি নির্বাচনী ইশতেহারে তরুণদের প্রত্যাশা কীভাবে নিবেন একটি বুদ্ধিদীপ্ত ও স্মার্ট ডিসিশন ফ্রেশাররা কেন চাকরি পায়না ইন্টারভিউ নেয়ার সঠিক ও জরুরি কৌশল ইন্ডিপেন্ডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে ইয়ুথ সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত মিটিং করার আগে ভাবুন তারুণ্যের উৎসব বাংলাদেশ ইয়ুথ সিম্পোজিয়াম-২০১৮ অনুষ্ঠিত হবে ৩০শে অক্টোবর ভয়ংকর আগস্ট ভালো হতে চেয়েছিলাম (ছোটগল্প) এইচআর নিয়ে একডজন ভুল ধারনা এবং উত্তর বিশ্ব শান্তির প্রসারে দক্ষিণ কোরিয়ার শান্তি সামিট অনুষ্ঠিত আত্মহত্যা নয়, জীবনকে উপভোগ করুন

কোটি পেরিয়ে কণা

ফিচার ডেস্ক

ইউটিউব থেকে কোটি ভিউয়ের স্বাদ সুকণ্ঠী কণা আগেই পেয়েছেন। পর পর তিনবার। যার দুটি চলচ্চিত্রের গান (দিল দিল দিল এবং ওহে শ্যাম), একটি মিউজিক ভিডিও (রেশমি চুড়ি)। অডিও গান কিংবা মিউজিক ভিডিওর দীর্ঘ ক্যারিয়ারে এবার দ্বিতীয়বারের মতো কোটি ভিউয়ের ক্লাবে ঢুকলেন তিনি। সেই সঙ্গে চলচ্চিত্র আর অডিও গানের কোটি ভিউতে সমতা আনলেন। কোটির বিচারে কণার ঘরে এবার দুটি চলচ্চিত্র আর দুটি মিউজিক ভিডিও জমা হলো।

এবারের গানটির নাম ‘ইচ্ছেগুলো’। গত বছর এপ্রিলে সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পাওয়া এই গান-ভিডিওটি সম্প্রতি (৩০ জুলাই) অতিক্রম করেছে কোটি ভিউয়ের ঘর। এতে কণা ছাড়াও কণ্ঠ দিয়েছেন ভারতের আকাশ সেন। শরীফ আলদীনের কথায় এটির সুর করেছেন নাজির মাহমুদ আর সংগীতায়োজন করেছেন মুশফিক লিটু।

এর ভিডিও নির্মাণ করেছেন একে পরাগ। মডেল হয়েছেন মুম্বাইয়ের আজহার সাইনি ও বাংলাদেশের অভিনেত্রী তাসনুভা তিশা। মোশন রক এন্টারটেইনমেন্টের কারিগরি সহায়তায় নির্মিত গল্পনির্ভর ব্যয়বহুল এই ভিডিওতে দেখা গেছে কণ্ঠশিল্পী কণাকেও।

গানটির ভিউ কোটি অতিক্রম করায় উচ্ছ্বসিত দিলশাদ নাহার কণা। তার ভাষ্য এমন, ‘অসম্ভব সুন্দর একটি গান। কৃতজ্ঞ নাজির ভাই আর মুশফিক ভাইর প্রতি। গানটির ভিডিওটাও অসম্ভব সুন্দও ছিল। শুরুতেই আমার মন বলছিলো এই গানটি অনেকদূর যাবে। অনেক দিন টিকে থাকবে। কোটি ভিউ অতিক্রম করার মধ্যদিয়ে সেটিই প্রমাণ হলো। গানটি যত্ন করে প্রকাশের জন্য সিএমভিকে ধন্যবাদ।’

এদিকে সিএমভির কর্ণধার এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু বললেন, ‘বরাবরই সংখ্যার চেয়ে মানের প্রতিযোগিতায় বিশ্বাস করি আমরা। গানটি অসম্ভব ভালো মনে হওয়ার কারণে এটির ভিডিও তৈরিতেও ছিলো আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা। সেই চেষ্টার ফল দর্শক-শ্রোতারা আমাদের দিয়েছেন। এটাই বড় প্রাপ্তি। শুদ্ধ বাংলা গানের জয় হোক।’